Home অপরাধ করোনা সারাতে এবার ‘শিশু কথা বলা’ গুজব…

করোনা সারাতে এবার ‘শিশু কথা বলা’ গুজব…

by Chief Editor
0 comment

মোঃআম্বিয়া হোসাইনঃ
রাত ১০ টায় হঠাৎ করেই দেশের বিভিন্ন অঞ০্চলে বিশেষ করে উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় ‘সদ্য ভূমিষ্ট শিশু’ কথা বলার গুজব রটেছে।অনেকেই বিষয়টি সম্পর্কে জনতার ডাক’র অফিসেও ফোন করে জানতে চেয়েছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে কে বা কারা গুজব ছড়িয়ে দিয়েছে যে, জন্মের ৫ মিনিট পর এক শিশু বলেছে আদা, লং, গোলমরিচ ও কালোজিরা দিয়ে চা বানিয়ে খেলে মরণঘাতী করোনাভাইরাস হবে না। এ কথা বলার পরপরই শিশুটি মারা যায়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর থেকে এমন কথা ছড়িয়ে পড়েছে দেশের বিভিন্ন এলাকায়।

এ ছাড়াও ওই সদ্য ভূমিষ্ট বাচ্চা মসজিদে সম্মিলিতভাবে আজান দিতে হবে বলেছে এবং আজান দিয়ে নফল নামাজ পড়তে হবে এমন গুজবও ছড়ানো হয়েছে দেশজুড়ে। অনেক মসজিদেই আজান দেওয়া হয়েছে বলেও জানা গেছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও ছড়িয়ে পড়েছে এ কথা। এ নিয়ে শুরু হয়েছে নানা হৈচৈ। কেউ বলছেন শিশুটি বগুড়ায় জন্ম নিয়েছে, আবার কেউ বলছেন রংপুরে, কেউবা বলেছেন নীলফামারী-লালমনিরহাটের কথা, কেউ বলছে ফেনীর। তবে আসলে শিশুটি কোথারও না।

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম তার ফেসবুকে এমনি এক অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে লিখেছেন- আজ রাত ৯ টা ১০ মিনিটে আমার এক নিকটাত্মীয় ফোন করে বললেন, ‘বাবা সাইফুল, দ্রুত একটু আদা, কালোজিরা ও গুলমরিচ খেয়ে নেও’।

আমি বললাম, কেন খাব? তিনি বললেন, ‘বগুড়ায় একটা শিশু জন্মের পর বলেছে আদা, গুলমরিচ আর কালোজিরা খেলে করোনাভাইরাস হবে না। এই তিনটা কথা বলে শিশুটা মারা গেছে। এখনও শিশুটার জানাজা হয়নি। বগুড়ার সবাই এগুলো খাচ্ছে। আমরাও খাচ্ছি। তুমিও খেয়ে নাও’।

আমি বললাম, এটা গুজব। মিথ্যাচার। এগুলো ঠিক নয়। তিনি বুঝতে চাইলেন না। আমাদের গ্রামাঞ্চলে এভাবেই সহজেই গুজব ছড়ানো হয়। মানুষদের বোকা বানানো হয়। সতর্ক থাকুন, গুজবে কান দেবেন না। গুজব বড় ধরনের মিথ্যাচার, বড় ধরনের পাপাচার। গুজব ছড়াবেন না, গুজব বিশ্বাসও করবেন না।

শুধু সাইফুল নয়, এমন অনেকেই বিভিন্ন এলাকা থেকে এমন ঘটনার কথা তুলে ধরে স্ট্যাটাস দিচ্ছেন। পাবলিক ভয়েসের ফোনে এবং এই প্রতিবেদকের কাছেও অনেকে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন।

তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, একটি মহল এ ধরনের গুজব ছড়িয়ে থাকেন। তবে এতে তাদের কী লাভ হয় এটা জানা যায়নি। এর আগেও নানা বিষয়ে গুজব ছড়ানো হয়েছে। এসবের বৈজ্ঞানিক বা ধর্মীয় কোনো ভিত্তি নেই। তাই গুজবে কান না দিয়ে করোনাভাইরাস প্রতিরক্ষায় সকলকে সচেতন হওয়ার অনুরোধ জানান বিশ্লেষকরা।

এ বিষয়ে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার তালক শাখাতী রিফুজি পাড়া জামে মসজিদের প্রাক্তন ইমাম ছমির উদ্দিন বলেন, আদা, লং বা লবণ দিয়ে আমরা এমনিতেই অনেক সময় চা খাই। ৪-৫ দিন আগেও এক পীর মারা যাওয়ার সময় এভাবে চা খেতে বলেছেন-এমনি এক গুজব ছড়িয়েছিল তার এলাকায়। পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, তিনি মারা যাননি। তাই এসব নিছক গুজব ছড়ানো ছাড়া আর কিছুই নয় দাবি করে তিনিও সচেতন থেকে নিজ নিজ ধর্ম পালনের কথা জানান।

এর আগেও দেশের দক্ষিণাঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে থানকুনি পাতা খেলে করোনা সেরে যাবে এমন গুজবও ছড়ানো হয়েছিলো। এবং অনেকেই ভোর রাতে উঠে বাগানে বাগানে থানকুনি পাতা খুঁজে খেয়েছেনও! পরে দেখা গেছে এটা নিছক গুজব

তবে প্রায় প্রায়ই এই ধরণের গুজব সৃষ্টি দেশের বিভিন্ন বিষয়ে একটি হুমকির মত। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে মানুষের মধ্যে গণ সচেতনতা আনা খুবই দরকার বলে মনে করেন বিশিষ্টজনেরা।

Related Posts

Leave a Comment


cheap jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap jerseys from chinacheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap mlb jerseyscheap nfl jerseys