Home অপরাধ ছাদ থেকে পড়ে মারা যায়নি, সোহানকে হত্যা করা হয়েছে: পরিবারের দাবি

ছাদ থেকে পড়ে মারা যায়নি, সোহানকে হত্যা করা হয়েছে: পরিবারের দাবি

by jonoterdak24
0 comment

মাদারীপুর পুরান শহর ভুইয়া বাড়ি সংলগ্ন একটি ৪তলা বিল্ডিং এর সামনে থেকে সোহান(১৭) নামের নবম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রের মৃতদেহ পাওয়া গেছে। গতকাল (২৯ অক্টোবর) মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। মৃত সোহান জেলার রাজৈর উপজেলার বাসিন্দা ডিস লাইনের মেরামতকারী মোঃ হাবিব শেখ এর ছেলে। তারা স্ব-পরিবারে ঐ বিল্ডিং এর মালিক মোঃ এনায়েত হোসেন নান্নু এর টিনের তৈরি বাসায় ভাড়া থাকতেন।

তবে মৃত্যুর কারণ এখনো পর্যন্ত জানা নাগেলেও পরিবারের দাবি সোহানকে হত্যা করা হয়েছে।

পারিবারিক ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, দুই ছেলে মেয়ের মধ্যে সোহান পরিবারের বড় সন্তান। মাদারীপুর ইউনাইটেট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্র ছিল সোহান। ছেলে-মেয়েকে লেখাপড়া করানোর উদ্দেশ্যে দীর্ঘদিন যাবত মাদারীপুর শহরে বসবাস করছেন তারা।

পারিবারিক সূত্রে আরো জানা যায়, বর্তমানে একটি ডিস লাইনের লাইন মেরামতের কাজ করে অনেক কষ্টে সন্তানদের লেখাপড়া ও সংসার চালান মৃত স্কুল ছাত্র সোহানের বাবা হাবিব শেখ। মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর থেকে সোহানকে খুজে পাওয়া না গেলে তার পিতা একাধিকবার মোবাইল ফোনে কল করেন। রিং হওয়া সত্ত্বেও ফোন না ধরায় তাকে খুজতে বের হন পিতা হাবিব। আশেপাশে অনেক খোজ করেও ছেলের সন্ধান পান না তিনি। হঠাৎই রাত ৯ টার দিকে মোবাইলে খবর পেয়ে তিনি বাসায় ছুটে এলে পাশেই বাড়ির মালিকের নিজস্ব ৪তলা ভবনের সামনে সোহান এর দেহ পড়ে থাকতে দেখেন। পরে রিক্সাযোগে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্ত্যব্যরত চিকিৎসক মৃত্য ঘোষনা করেন।

ছেলের মৃত্যুর ব্যাপারে হাবিব শেখ বলেন, আমার ছেলে ছাদ থেকে পড়ে গিয়ে মারা যায়নি। সোহান কে হত্যা করে ৫তলা ভবনের নিচে ফেলে রাখা হয়েছে। সোহান কোন রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলনা, তবে কিছুদিন আগে বন্ধুদের সাথে বিরোধ হলে কয়েকজন সোহান এর গায়ে হাত তোলেন। পরে এটা মিমাংসাও করা হয়। কে বা কারা হত্যা করেছে জানতে চাইলে, তিনি এ ব্যাপারে কিছু বলতে পারেননি।

এব্যাপারে বাড়ির মালিক এনায়েত হোসেন নান্নু বলেন, সোহান প্রায়ই বন্ধুদের নিয়ে বাড়ির ছাদে বসে আড্ডা দিত। ধারনা করা হচ্ছে, ছাদ থেকে নিচে পড়ে গিয়েই মৃত্যু হয়েছে।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালে কর্ত্যব্যরত চিকিৎসক বলেন, মৃত্যের থুতনিতে ও মাথায় জখম সহ ডান হাত ভাংঙ্গা ছিল, ময়না তদন্ত্রের পরে শরীরে আঘাতের পুরোপুরি তথ্য দেয়া যাবে।

মাদারীপুর সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থান পরিদর্শন করেন। সেখানে গনমাধ্যমের উপস্থিতিতে বাড়ির ছাদ থেকে কিছু নেশার সরঞ্জাম উদ্ধার করেন পুলিশ। পরবর্তীতে মৃত্যের বাড়ির সামনে অবস্থিত দুটি মোটরসাইকেলের শো রুমে থাকা সি সি ক্যামেরার ফুটেজ সংরক্ষন করেন এবং সিসি ফুটেজ পর্যবেক্ষন করে এঘটনা উদঘাটনের চেষ্টা করা হবে বলে জানান।

Related Posts

Leave a Comment


cheap jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap jerseys from chinacheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap mlb jerseyscheap nfl jerseys