Home আইন জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতি বরাবরে আনসারদের স্মারকলিপি

জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতি বরাবরে আনসারদের স্মারকলিপি

by jonoterdak24
0 comment

 

জনতার ডাক : দুর্নীতিবাজ ও ঘুষখোর সিলেট জেলা কমান্ড্যান্ট ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে তাদের শাস্তির দাবীতে সিলেটের সচেতন আনসারগণ মঙ্গলবার (১৩ মার্চ) সিলেটের জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মহামান্য রাষ্ট্রপতি বরাবরে এক স্মারকলিপি প্রদান করেছে।

স্মরকলিপিতে আনসার সদস্যগণ অভিযোগ করে বলেন, তারা বিগত ২০১৫ ইংরেজি সনের দুর্গাপূজা, ২২/০৩/২০১৬ইং তারিখে সমাপ্ত হওয়া সিলেট সদর উপজেলা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন এবং ২০১৭ ইংরেজি সনে দুর্গাপূজা ও ২০১৭ ইংরেজী সনের উপজেলা নির্বাচনে ডিউটি করে। তাদের প্রত্যেককে ১,৬০০ টাকা করে দেয়ার কথা থাকলেও বিগত ২৬/০৩/২০১৬ইং তারিখে আখালিয়া আনসার ও ভিডিপি অফিসার ডেকে এনে ৪শত টাকা করে দেয়।

আনসারগণ উক্ত টাকা না নিয়ে বিষয়টি জেলা কম্যান্ড্যান্ট আশীষ কুমার ভট্টাচার্যকে জানালে তিনি বলেন, যা দিবে তা নিয়ে নাও, নতুবা চাকুরী থাকবে না এবং পুলিশে দেয়ার হুমকী দেন। এই অবস্থায় আনসার সদস্যগণ মানবন্ধন ও তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ে করে। মামলার পর চাকুরী ও ডিউটির টাকা সম্পূর্ণ ফিরিয়ে দেয়া আশ^াসে আপোষনামার মাধ্যমে মামলা তোলা হয়। মামলা তোলার পর কিছুদিন চাকুরী করার সুযোগ দিয়ে আবার প্রত্যাহার করেন এবং ডিউটির কোন টাকাই দেয়নি। আনসার সদস্যগণ নিরুপায় হয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, সিলেটের জেলা প্রশাসক ও উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা বরাবরে আবেদন করেও এখন পর্যন্ত কোন সুরাহা পায়নি। তাই নিরীহ আনসার সদস্যদের শেষ ঠিকানা হিসেবে মহামান্য রাষ্ট্রপতি বরাবরে দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থ গ্রহণ সহ ডিউটির টাকা উদ্ধার এবং চাকুরী ফিরিয়ে দেয়া অনুরোধ জানান।

স্মারকলিপিতে আরো বলা হয়, দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা সিলেট জেলা কমান্ড্যান্ট মোঃ ফখরুল আলম, সদর উপজেলা কর্মকর্তা আবু সাহাদাৎ মোহাম্মদ এনামুল হক, সার্কেল অ্যাডজুট্যান্ট মোঃ মিজানুর রহমান ভুইয়া, উপ-পরিচালক রেঞ্জ সারওয়ার জাহান চৌধুরী সহজ সরল আনসারদের নিকট হতে বদলী ও চাকুরী দেয়ার কথা বলে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এছাড়াও স্মারকলিপিতে কয়েকটি সুনির্দিষ্ট অভিযোগ করা হয়।

অভিযোগগুলো হচ্ছে- (১) সিলেট জেলা স্থায়ী বাসিন্দা আনসারদের নিয়োগ না দিয়ে, তাদের পছন্দমত ব্যক্তিকে অন্য জেলা থেকে এনে টাকার বিনিময়ে সিলেটে নিয়োগ দেয়া। (২) জেলা কমান্ড্যান্ট মোঃ ফখরুল আলম ও তার স্ত্রী একই অফিসে কাজ করার সুবাধে স্বামী-স্ত্রী মিলে দুর্নীতি করছে। (৩) কর্মরত কর্মকর্তাদের সিলেট জেলা থেকে প্রত্যাহার করার পরও ঘুষ ও অফারের মাধ্যমে আবার ফিরে আসা। (৪) ভুয়া অফার আনসারের নীতিমালায় নেই। এটা বন্ধ করতে হবে। (৫) সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে আনসারগণ অস্থায়ী ভিত্তিতে দৈনিক হাজিরায় কাজ করেন। এই অবস্থা তাদের অন্য জেলা পাঠানো হলে দৈনিক যা আসে তাই ব্যয় হয়ে যায়। (৭) সিলেটে প্রায় এক হাজার আনসার সদস্যগণ অঙ্গীভূতি আছেন। কিন্তু প্রায় তিনশত আনসার সদস্যের পদশূন্য পড়ে রয়েছে। দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাগণ আনসারদের শূন্যপদের লোক নিয়োগ না দিয়েই রেশনের গম ও চাল উত্তোলন করে কালোবাজারে বিক্রি করছে। দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাগণ বলে থাকেন তাদের বিরুদ্ধে কোন অভিগো করে কোন লাভ হবে না, কারণ তারা সবাই বর্তমান সরকারের ঘনিষ্ঠ ও বিশ^স্থ লোক।

স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন আনসার আলী, নজরুল ইসলাম, কামাল, আলমাছ, সুরঞ্জন, সুজিৎ সিং, শহিদুল ইসলাম, দিলু, মামুন, রিয়াজ, হান্নান, হাবিব, আমিন আহমদ, পাবেল, বাবুল, সুহেল মিয়া, নাবিল, রশিদ, পাবেল, বাবুল, ফারুক, শাকিল, হাছন প্রমুখ।

সিলেটের সচেতন আনসার সদস্যদের দাবী মহামান্য রাষ্ট্রপতি দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ শাস্তি প্রদান সহ কঠোর ব্যবস্থ গ্রহণ করবেন। বিজ্ঞপ্তি

Related Posts

Leave a Comment


cheap jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap jerseys from chinacheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap mlb jerseyscheap nfl jerseys