Home বিনোদন বিয়ানীবাজারের কুশিয়ারায় নৌ-জাহাজে নদী জরিপ

বিয়ানীবাজারের কুশিয়ারায় নৌ-জাহাজে নদী জরিপ

by jonoterdak24
0 comment

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি : আবহমান বাংলার ঐতিহ্যবাহী নদী কুশিয়ারায় নৌ-মন্ত্রনালয়ের জরিপে আসা দুটি জাহাজ দেখে কৌতোহলের শেষ নেই দক্ষিণ ও উত্তর ভাগের সাধারণ মানুষের মধ্যে। ইদানিং নদীতে ইঞ্জিল নৌকা তেমন দেখা যায় না। তাই এত আগ্রহ মানুষের মাঝে। নৌ-জাহাজ “তিতাস-এম৬৭৩৮” আর “ওয়ার্ককোর্ট কদম-এম ১০১৪৪” আগমনে নদী ফিরে পেয়েছিল তার হারানো ঐতিহ্য । ঢেউয়ের তালে তালে আর মাঝি-মাল্লার নৌকার ছন্দে নদী যেন স্বল্প সময়ের জন্য হারানো যৌবন ফিরে পেল। বিদেশী জাহাজের আগমনে বাজারের ভিতরে চায়ের আড্ডা ও পানের দোকান এবং ব্যবসায়ীদের মধ্যে আলোচনায় সরাগম।

সরেজমিন কথা বলে জানা যায় দুটি জাহাজ বিআইড্রভিউটি “তিতাস ও ওয়ার্ককোট কদমের” দায়িত্বে রয়েছেন মোহাম্মাদ শাহ আলম সহকারী পরিচালক (প্রধান), জনাব বাবুল আক্তার সহকারী পরিচালক, জনাব তপন শিকদার, উপ সহকারী পরিচালক ও অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ। বড় ও ছোট দুটি জাহাজের সদস্য সংখ্যা হচ্ছে (বড় -১১জন) ও (ছোট ৩ জন)।
জাহাজ দুটি ৩রা জুন কিশোরগঞ্জের মিঠাপুর থেকে বিগত ২০/০৭/১৬ইং তারিখে যাত্রা শুরু করে। তবে প্রকৃতির বিরূপ আবহাওয়া নানা ভাবে নৌ-জরিপে বাধা সৃষ্টি করেছে বলে, জানিয়েছেন নৌ কর্মকর্তা। ৪নং শেওলা ইউনিয়নের বড় শালেশ্বর বাজারে তাদের নৌ-জাহাজ দুটি নোঙ্গর করেন। শেওলা বিজ্র ও তার আশেপাশে নাব্যতা নিরুপনে ব্যতিব্যস্ত থাকেন তারা।
হাইড্রোগ্রাপি বা অনোকপ ঢাকা থেকে কুশিয়ারা নদীর আশুগঞ্জ-জকিগঞ্জ পটোকল নৌ-রুটের ঘোড়াদিয়া বাজার হইতে শেরপুর পর্যন্ত এলাকায় খনন পূর্ব হাই- হাইড্রোগ্রাপিক জরিপের অর্ন্তভূক্ত। নৌ- জরিপের ব্যাপারে প্রধান নৌ কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহ আলম তালাশ বার্তাকে জানান ইন্ডিয়া বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় নৌ-জরিপ চলছে। এ সময় তাঁর পাশে ছিলেন, সহকারী পরিচালক, উপ-পরিচালক ও অন্যান্যরা।

তারপর নথীপত্র দেখতে চাইলে, তা তিনি দেখাতে ব্যর্থ হন। তাদের হেডকোয়াটারদের নিকটে রাখা আছে বলে জানান। তাৎক্ষনিক তার পাশে থাকা উপ-পরিচালক তপন শিকদার বলেন, শুধু বাংলাদেশের নৌ অধিদপ্তরের তত্ত্বাবধায়নে জরিপ পরিচালিত হচ্ছে। সহকারী পরিচালক বাবুল আক্তার বলেন, বিস্তারিত জানতে নৌ অধিদপ্তরের যুগ্ম সচীব নৌ- জরিপ জনাব সাইফুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করতে বলেন।
তদন্ত শেষে জরিপের পূর্ণ রিপোর্ট ঢাকার নৌ হেডকোয়াটারে জমা দেওয়া হবে। তা যাচাই বাচাই পর ইন্ডিয়া নৌ-দপ্তরকে দেওয়া হবে। তখন তাদের মধ্যে মনোমালিন্য আর্বতীত হলে সময়ের সল্পতার অজুহাতে তারা আর প্রশ্নের জবাব দেননি। সকাল ৭টার দিকে তারা জকিগঞ্জের উদ্দ্যেশে শালেশ্বর বাজার থেকে রওয়ানা হন। তাদের নিরাপত্তা সংক্রান্ত ব্যপারে বিয়ানীবাজার থানার অফিসার্স ইনচার্জ চন্দন চক্রবর্তী অবগত ছিলেন।

Related Posts

Leave a Comment


cheap jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap jerseys from chinacheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap mlb jerseyscheap nfl jerseys