Home জাতীয় যুদ্ধাপরাধী পরিবারের কেউ আ.লীগের সদস্য হতে পারবে না

যুদ্ধাপরাধী পরিবারের কেউ আ.লীগের সদস্য হতে পারবে না

by jonoterdak24
0 comment

নিজস্ব প্রতিবেদক
আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রে পরিবর্তন আসছে। যুদ্ধাপরাধী এবং বঙ্গবন্ধু হত্যার সঙ্গে জড়িত পরিবারের কোনো সদস্যকে আওয়ামী লীগের সদস্য না করার প্রস্তাব করা হয়েছে। এ ছাড়া দলের পদসংখ্যা বাড়ছে। সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদকসহ আটটি পদ বাড়ছে। স্থানীয় সরকার নির্বাচনে দলের প্রার্থী মনোনয়নে পৃথক বোর্ড গঠনের বিষয়টিও গঠনতন্ত্রে সংযোজনের প্রস্তাব করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির ২০তম জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে গঠিত গঠনতন্ত্র উপকমিটির সভায় এসব প্রস্তাব করা হয়। ২২ ও ২৩ অক্টোবর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এ সম্মেলন হওয়ার কথা রয়েছে।

সভা শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্র উপকমিটির আহ্বায়ক সাবেক খাদ্যমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক নতুন প্রস্তাব যুক্ত করাসহ গঠনতন্ত্রে পরিবর্তন আনার বিষয়টি তুলে ধরেন। তিনি বলেন, যুদ্ধাপরাধী পরিবারের কোনো সদস্য আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্যও হতে পারবে না। একই সঙ্গে বঙ্গবন্ধু হত্যার সঙ্গে জড়িত পরিবারের কোনো ব্যক্তিও আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারবে না। দলের আসন্ন সম্মেলনে গঠনতন্ত্রে তা সংযোজনের প্রস্তাব করা হবে।

আবদুর রাজ্জাক বলেন, দলকে সুসংগঠিত করতে গঠনতন্ত্র সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখে। দলের সাংগঠনিক কাঠামো বাড়ানোর নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গঠনতন্ত্র উপকমিটির সভায় খসড়া প্রস্তাব তৈরি করা হয়েছে। পরবর্তী সময়ে তা দলের কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় তোলা হবে। সেখান থেকে অনুমোদন নেওয়ার পর সেটা কাউন্সিলে উপস্থাপন করা হবে। কাউন্সিলরদের মতামতের ভিত্তিতে প্রস্তাব চূড়ান্ত হবে।

আওয়ামী লীগে নতুন আটটি পদ বাড়ছে বলে জানান গঠনতন্ত্র উপকমিটির আহ্বায়ক আবদুর রাজ্জাক। তিনি বলেন, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যসংখ্যা ১৫ জন থেকে বেড়ে ১৯ জন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তিন থেকে বেড়ে চারজন, সাংগঠনিক সম্পাদক সাত থেকে বেড়ে আটজন হবে। আর কার্যনির্বাহীর সদস্যসংখ্যা আরও দুজন বাড়ানো হচ্ছে। সব মিলিয়ে কেন্দ্রীয় কমিটির আকার বেড়ে ৭৩ থেকে ৮১ জন করা হবে।

গঠনতন্ত্র উপকমিটির সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন কমিটির সদস্যসচিব আফজাল হোসেন, সদস্য মাহবুব উল আলম হানিফ, দীপু মনি, আবদুল মতিন খসরু, ফারুক খান, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আবদুস সোবহান গোলাপ, সুজিত রায় নন্দী, আমিনুল ইসলাম, শেখ ফজলে নূর তাপস প্রমুখ।

Related Posts

Leave a Comment


cheap jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap jerseys from chinacheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap mlb jerseyscheap nfl jerseys