Home শিক্ষা সিলেটে সকাল-সন্ধ্যা পুস্তক ব্যবসায়ীদের অবস্থান ধর্মঘট

সিলেটে সকাল-সন্ধ্যা পুস্তক ব্যবসায়ীদের অবস্থান ধর্মঘট

by jonoterdak24
0 comment

শিক্ষা আইন ২০১৬ খসড়া -এর কয়েটি উপধারা বাতিলের দাবিতে সারা দেশের ন্যায় সিলেটেও সকাল-সন্ধ্যা অবস্থান ঘর্মঘটের ডাক দেয় বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি সিলেট জেলা শাখা । পাশাপাশি সকল প্রকার পুস্তক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখেন ব্যাবসায়ীরা।

জানা যায়, নোটবই-গাইড বই প্রকাশ ও পড়ানো এবং কোচিং সেন্টার পরিচালনা করলে জেল-জরিমানার বিধান রেখে শিক্ষা আইনের খসড়া প্রণয়ন করেছে সরকার। কোচিং সেন্টার পরিচালনা করলে এমপিও (বেতন-ভাতাদির সরকারি অংশ) বাতিল এবং নোটবইয়ের জন্য অর্থদণ্ডসহ ছয় মাসের কারাদণ্ডের বিধান রেখে ওই আইনের খসড়ার ওপর মতামত চেয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তারই প্রতিবাদে আজ ১০ এপ্রিল রোববার সকল প্রকার পুস্তক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে অবস্থান ধর্মঘট পালন করছে বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি সিলেট জেলা শাখা।

বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি সিলেট জেলা শাখার সেক্রেটারী খলিলুর রহমান বলেন, আমরা অত্যান্ত শান্তিপ্রিয় ভাবে অবস্থান ধর্মঘট করেছি। আমাদের এই অবস্থান ধর্মঘটে সিলেট বিভাগের সকল উপজেলা সভাপতি ও সেক্রটারীগণ উপস্থিত হয়ে পুস্তক ব্যবাসর সাথে জড়িতদের স্বার্থে এই কর্মসূচীতে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন। আমরা এই ধর্মঘটের মাধ্যমে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করেছি । আমরা বলতে চেয়েছি পুস্তক ব্যবসার সাথে জড়িত লক্ষ লক্ষ পরিবারকে ধ্বসের হাত থেকে রক্ষা করুন।

সংগঠনের সিলেট জেলা শাখার সভাপতি মাহবুবুল আলম মিলন জানান, শিক্ষা আইন-২০১৬-এর খসড়া আইনের সরকার কিছু কিছু উপধারা সংযুক্ত করেছেন যা পুস্তক ব্যবসায়ীদের সর্বশান্ত করার জন্য যথেষ্ট। তাই আজ সারা দেশের মতো সিলেটেও আমরা এর প্রতিবাদ জানাতে সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত অবস্থান ধর্মঘট করেছি এবং সকল প্রকাশ পুস্তক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রেখেছি।

বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সিলেট বিভাগীয় পরিচালক আনোয়ার রশিদ আনু বলেন, সরকার শিক্ষার্থীদের জন্য বিনামূল্যে বই বিতরণ করছেন। এখন গাইড এবং শৃজনশীল অনুশীলন বইগুলো বন্ধ করার প্রক্রিয়া হাতে নিয়েছেন। তাতে করে পুস্তক প্রকাশনা ও ব্যবসার সাথে জড়িত বাংলাদেশের লক্ষ লক্ষ পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হবে এবং এই ব্যবসা পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে। সেই জন্য আমাদের আজকের আন্দোলন। আমরা সরকারের বিপক্ষে নই কিংবা আমরা কোন রাজনৈতিক দলও নই। সরকারের প্রতি পূর্ণ আস্থা রেখেই আমরা আমাদের প্রতিবাদ জানিয়েছি। আশা করছি পুস্তক ব্যবসার সাথে জড়িতদের স্বার্থক্ষু্ন্ন হয় এমন পদক্ষেপ নেয়া থেকে সরকার দুরে থাকবেন।

উল্লেখ্য, শিক্ষা আইন ২০১৬ খসড়া মন্ত্রীসভায় উত্থাপিত হলে পুস্তক ব্যবসায়ীরা এর বিভিন্ন বিষয় পর্যবেক্ষণ করেন এবং আইনের কিছু কিছু উপধারা পুস্তক ব্যবসার সাথে জড়িতদের সর্বসান্ত করবে বলে উপলব্ধি করেন। ফলে গত ৭ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটি আনুষ্ঠানিক বৈঠক করে আজকের এই আন্দোলনের ডাক দেয়।4

Related Posts

Leave a Comment


cheap jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap jerseys from chinacheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap mlb jerseyscheap nfl jerseys