Home অপরাধ সিলেট কৃষি ব্যাংক কর্মকর্তাদের অনিয়ম কর্মকান্ড

সিলেট কৃষি ব্যাংক কর্মকর্তাদের অনিয়ম কর্মকান্ড

by jonoterdak24
0 comment

নিজস্ব প্রতিবেদক :রাষ্ট্রীয় মালকিানাধীন কৃষি ব্যাংকে সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ে অনয়িম-র্দুনীতি ভয়ঙ্কর পর্যায়ে পৌছেছে। কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের অনিয়মের কর্মকন্ডের নানা অভিযোগ পাওয়া গেছে। যেখানে কৃষক থেকে শুরু করে সাধারণ গ্রাহকদের সেবা দেয়ার জন্য ব্যাংক কার্যালয় করা হয়েছে, কিন্তু সিলেট জিন্দাবাজারে বিভাগীয় কার্যালয় গিয়ে দেখা যায় অন্য চিত্র । ব্যাংকের ভিতর দেখলে মনে হবে এটা ব্যাংক না বাসা। জিন্দাবাজার শাখাসহ সিলেটর অন্যান্য শাখার কর্মকর্তারা ব্যাংকে বাসা বাড়ির মত ব্যাবহার করে আসছেন। অন্যদিকে গ্রাহকদের সাথেও নানা অনিয়ম করে আসছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।
কৃষি ব্যাংক বিভাগীয় কার্যালয় জিন্দাবাজার শাখার ব্যবস্থাপক সোমেশ কোমার দেব নাথ‘র যোগসাজে সিলেটের অন্যান্য কৃষি ব্যাংক শাখার কয়েকজন কর্মকর্তা মিলে অনিয়মের কার্মকান্ডব চালিয়ে যাচ্ছেন। মহাব্যবস্থাপক সোমেশ কোমার দেব নাথ নিজেই রাত্রিযাপন করেন ব্যাংকের ভিতরেই, কিন্তু সরকারী কর্মকর্তা হয়েও বিধি বিধানকে তোয়াক্ষা না করে ব্যাংকেই বাসা বানিয়ে বসবাস করে যাচ্ছেন।

ব্যাংকের ৩য় ও ৪র্থ তলায় মেচ বানিয়ে থাকার ব্যবস্থা করেছেন কৃষি ব্যাংকের বিভিন্ন শাখার কর্মকর্তারা। শুধু তাই নয় খাবার তৈরী করার জন্য কয়েকজন মহিলা ও রেখেছেন ব্যাংক কর্মকর্তারা।
যদি ও ব্যাংকের ৪র্থ তলায় ব্যাংকের অনেক জরুরী কাগজপত্র রয়েছে সংরক্ষিত। আইন অমান্য করে ব্যাংকের ভিতরে থাকা খাওয়া ব্যবস্থা স্বয়ং সিলেট বিভাগীয় শাখার ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ যোগ সাজসে

এ ব্যাপারে সোমেশ কোমার দেব নাথ ‘র যোগাযোগ করলে তিনি প্রতিবেদকে বলেন অন্যায় স্বীকার করে বলেন আমরা ২/১ দিনের ভিতরে অন্যত্র বাসার ব্যবস্থা করে এখান থেকে চলে যাবো এবং আমাদেরকে কাকুতি মিনতি করতে থাকেন আর বলেন সংবাদ প্রকাশ না করতে। তিনি নিজেকে কোন এক সময় সাংবাদিকতা করতেন বলে আমাদেরকে জানান এবং একজন সিনিয়র কর্মকর্তা হিসেবে আমাদেরকে সংবাদ প্রকাশ না করার জন্য বিভিন্ন ধরনের লোভ লালসা দেখান। তিনি আরো বলেন আপনাদের কোন নিজের লোকের লোন নিতে চাহিলে সবকিছু তাড়াতাড়ি সমাধান করে দিবো তবুও আপনারা সংবাদটা প্রকাশ করবেন না।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উক্ত ব্যাংকের এক কর্মকর্তা জানান ব্যাংকের কাজের কোন নির্দিষ্ট সময় নেই রাতের বেলাও ব্যাংকের ভিতরে কাজ হয় ও বাহিরে থেকে লোক আসা যাওয়া করে। জানাযায়, কয়েকদিন আগে এক গ্রাহকের জরুরী কাগজপত্র হারিয়ে গিয়েছে। এ ব্যাপারে কথা বললে ব্যবস্থানা পরিচালক কথাটি অস্বীকার করে বলেন তিনি আসার পর থেকে এ রকম কোন ঘটনা উনার জানা নেই।

Related Posts

Leave a Comment


cheap jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap jerseys from chinacheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap mlb jerseyscheap nfl jerseys