Home আন্তর্জাতিক হানতাভাইরাস’ কী, কীভাবে ছড়ায়

হানতাভাইরাস’ কী, কীভাবে ছড়ায়

by Chief Editor
0 comment

জনতারডাক ঃ উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া নোভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণে বিপর্যস্ত চীনসহ গোটা বিশ্ব। মরণঘাতী এই ভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে ১৮ হাজার ৮৯২ জনের। এই পরিস্থিতিতে চীনে ‘হানতাভাইরাস’ নামে আরেকটি ভাইরাসে একজনের মৃত্যুতে নতুন করে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছে। কী এই ভাইরাস, কীভাবে ছড়ায়- এই নিয়ে প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে জনমনে।

চীনের সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমসের খবরে বলা হয়, ইউনান প্রদেশে মারা যাওয়া ব্যক্তি ‘হানতাভাইরাস’ পজিটিভ এবং করোনাভাইরাস সংক্রান্ত রোগ ‘কোভিড-১৯’ নেগেটিভ।

দেশটির সংবাদ সংস্থা সিনহুয়ার খবর বলা হয়, চীনে ‘হানতাভাইরাস’ সংক্রমিত আর কোনো রোগী পাওয়া যায়নি। তবে এ ব্যাপারে গবেষণা ও অনুসন্ধান শুরু করা হয়েছে।

করোনাভাইরাসের মতো যেন এই ভাইরাস মহামারি আকার ধারণ না কে তাই সতর্কতা তৈরির জন্য হানতাভাইরাস কী, এর লক্ষণ এবং এই ভাইরাস কীভাবে ছড়ায় তা জানা প্রয়োজন।

হানতাভাইরাস কী?

সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) বলছে, হানতাভাইরাস এক একটি ভাইরাসগোষ্ঠী, যা মূলত ইঁদুর থেকে সংক্রমিত হয়।

এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে বিভিন্ন রোগের উপসর্গ দেখা যায়। অঞ্চলভেদে হানতাভাইরাস ভিন্ন ভিন্ন নামে পরিচিত। আমেরিকাতে ‘নিউ ওয়ার্ল্ড’ হানতাভাইরাস হিসেবে পরিচিত, অন্যদিকে ইউরোপ ও এশিয়াতে এটি ‘ওল্ড ওয়ার্ল্ড’ হানতাভাইরাস হিসেবে পরিচিত।

নিউ ওয়ার্ল্ড হানতাভাইরাসে আক্রান্ত হলে ফুসফুসজনিত উপসর্গ (এইচপিএস) দেখা দিতে পারে, অন্যদিকে ওল্ড ওয়ার্ল্ড হানতাভাইরাসে মুত্রাশয়জনিত উপসর্গ (এইচএফআরএস) দেখা দেয়। সঙ্গে রক্তক্ষরণ ও জ্বর হতে পারে।

হানতাভাইরাসের লক্ষণ

এইচপিএসর লক্ষণ : এইচপিএস’র প্রাথমিক লক্ষণগুলোর মধ্যে ক্লান্তি, জ্বর এবং উরু, পশ্চাতদেশ, পিঠ, কাঁধসহ শরীরের বিভিন্ন পেশিতে ব্যথা হতে পারে। সংক্রমিত ব্যক্তি মাথাব্যথা, মাথাঘোরা, ঠাণ্ডা লাগা এবং পেটের সমস্যায়ও ভুগতে পারে। লক্ষণগুলো চার থেকে ১০ দিন পর দেখা দিতে পারে। সেক্ষেত্রে আক্রান্তদের কাশি ও শ্বাসকষ্ট হতে পারে, যা কিছুক্ষেত্রে মারাত্মক আকারও ধারণ করতে পারে।

এইচএফআরএসর লক্ষণ : এইচএফআরএস’র ক্ষেত্রে ভাইরাসের সংস্পর্শে আসার পরে এক থেকে দুই সপ্তাহের মধ্যে লক্ষণগুলোর বিকাশ ঘটে। তবে কিছু ক্ষেত্রে লক্ষণগুলো দেখাতে আট সপ্তাহ পর্যন্ত সময় নিতে পারে। প্রাথমিক লক্ষণগুলোর মধ্যে রয়েছে তীব্র মাথাব্যথা, পিঠ ও পেটব্যথা, জ্বর, সর্দি, বমি বমি ভাব এবং ঝাপসা দৃষ্টি। অন্যদিকে, দেরিতে দেখা দিলে নিম্ন রক্তচাপ, তীব্র শক, রক্তনালীতে ছিদ্র ও তীব্র কিডনির ফেইলিউর হতে পারে।

হানতাভাইরাস কীভাবে ছড়ায়

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র জানায়, সৌভাগ্যবশত, এই হানতাভাইরাস মানুষ থেকে মানুষে সংক্রমিত হয় না, বাতাসে ছড়ায় না। গবেষণায় বলা হচ্ছে, হানতাভাইরাস ইঁদুর থেকে ছড়ায়। ইঁদুর দমন হলো এই ভাইরাসের বিস্তার বন্ধের প্রাথমিক উপায়।

২০১৭ সালে যুক্তরাষ্ট্রে হানতাভাইরাসের একটি ছোট প্রাদুর্ভাব হয়েছিল। তবে কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি

Related Posts

Leave a Comment


cheap jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap jerseys from chinacheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap nfl jerseyscheap mlb jerseyscheap nfl jerseys